Home Lifestyle News তিস্তা নদীকে মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচানোর দাবিতে নীলফামারী জেলায় গঠিত হলো 'তিস্তা...

তিস্তা নদীকে মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচানোর দাবিতে নীলফামারী জেলায় গঠিত হলো ‘তিস্তা নদী রক্ষা কমিটি’

তিস্তা নদীকে মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচানোর দাবিতে অবশেষে নীলফামারী জেলায় গঠিত হলো ‘তিস্তা নদী রক্ষা কমিটি‘। কার্যত এটি একটি ‘বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন/বাপা’র সহযোগী সংগঠন।

কমিটি গঠনের শেষে ডিমলা থানার তিস্তা নদীর পাড়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সংক্ষিপ্তাকারে পরিবেশ বিষয়ক বৈঠক ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

Government Job Circular Application on facebook
তিস্তা নদী রক্ষা কমিটি

উক্ত আলোচনাসভায় তিস্তা নদী ও পরিবেশ রক্ষার বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোকপাত করা হয়।

উক্ত আলোচনাসভায় উপস্থিত ছিলেন ‘তিস্তা নদী রক্ষা কমিটি’র নীলফামারী জেলা শাখার সভাপতি মো: রিপন হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মো: ফারুক হোসেন।

উক্ত আলোচনা সভায় সঞ্চালনের ভূমিকায় ছিলেন সাংগঠনিক সম্পাদক মো: রেজাউল করিম পলাশ ও প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাজু বাঙালি। তিস্তা নদীর ভয়াবহতার বিভিন্ন দিক তুলে ধরে তিনি বলেন, এককালের খরস্রোতা তিস্তা নদী এখন জলের অভাবে প্রায় মৃত নদীতে পরিণত হয়েছে, এই অবস্থা অব্যহত থাকলে পরিবেশ বিপর্যয়ের স্বীকারে পরিণত হবে মরুভূমি হয়ে পড়বে গোঠা উত্তরাঞ্চল।

তিস্তা নদী রক্ষা কমিটির নীলফামারী শাখার সভাপতি রিপন হোসেন বলেন, প্রবাসীরা যেখানেই থাকেন না কেন, শৈশবের স্মৃতিময়  নদীর কথা ভুলতে পারেন না। সেই নদীর বিপন্নতার কথা শুনলে মন বিষণ্ণ হয়ে যায়। তিনি পিয়াইন, সারি, ডাউকি, ধলাই, ভাদেশ্বরা নদীর স্মৃতিচারণ করে বলেন, সিলেট অঞ্চলের নদ-নদীরক্ষায় পরিবেশবাদীদের চলমান লড়াইয়ে প্রবাসীদের সম্পৃক্ত করতে তিনি প্রচেষ্টা চালাবেন। 

তিস্তা নদীকে মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচানোর দাবিতে নীলফামারী জেলায়

সহ-সভাপতি সাইফুল্লাহ আল হেলাল বলেন, ‘পরিবেশ আন্দোলনের অব্যাহত কর্মসূচির কারণে মানুষ নদীরক্ষার কথা ভাবতে শুরু করেছে। সরকারও নদী রক্ষাকে গুরুত্ব দিতে বাধ্য হচ্ছে। উচ্চ আদালত পরিষ্কারভাবে নদী বিষয়ক দিক নির্দেশনা ঘোষণা করেছে। প্রধানমন্ত্রী নদী বাঁচাতে টাস্কফোর্স ও নদী কমিশন তৈরি করে দিয়েছেন। তাই পরিবেশ আন্দোলনকে আরও শক্তিশালী করার মাধ্যমে নদীরক্ষার কাজকে সহযোগিতা করা প্রয়োজন। তিনি বলেন, নদী ও পরিবেশ রক্ষার লড়াই কারো ব্যক্তিগত লড়াই নয়; এ লড়াইয়ে জয়ী হলে সকলের জয়, পরাজয় হলে সকলের পরাজয়।’

তিস্তা নদী রক্ষা কমিটির মূল শ্লোগান হলো ‘নদীকে নদীর মতো বইতে দাও’, ‘তিস্তা বাঁচাও রংপুর বাঁচাও, নদী বাঁচাও, দেশ বাঁচাও’, ‘সেইভ তিস্তা, সেইভ আওয়ার এগজিস্টেন্স’।

তিস্তা নদীর ইতিবৃত্ত ও পরিবেশের ভারসাম্যের বিভিন্ন দিক  তুলে ধরে আরও বক্তব্য রাখেন যথাক্রমে- সহ-সভাপতি হাফেজ মো: আমিনুর রহমান, শাহিন আলম, সাইফুল্লাহ আল হেলাল, মশিউর রহমান, ও আলমগীর কবির সহ আরো অনেকে।

সাজু বাঙালি

Post related things: তিস্তা নদী রক্ষা কমিটি, Tista River Save Committee, Tista River, তিস্তা নদী,  একজন নদী প্রেমী মানুষের গল্প, নীলফামারী জেলা তিস্তা নদী রক্ষা কমিটি,

RELATED ARTICLE

Most Popular

বিনামূল্যে টেলিমেডিসিন স্বাস্থ্যসেবা “সাড়া” এর প্রথম ফেসবুক লাইভ ” সাড়া – স্বাস্থ্য কথন”

মোঃ আরমান হোসেন দীপ্ত: গতকাল ২২ শে আগষ্ট, শনিবার রাত ৯ টায় বিনামূল্যে টেলিমেডিসিন স্বাস্থ্য সেবা সার্ভিস "সাড়া" আয়োজিত ফেসবুক লাইভ অনুষ্ঠিত...

সাড়ায় যে সকল চিকিৎসক সাড়া দেন

কোভিড-১৯ মহামারিতে বিপর্যস্ত বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যসেবা হুমকির মুখে পড়ে গেছে। এ সংকট মোকাবেলায় বিশ্বব্যাপী ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে টেলিমেডিসিন...

হামরা তো জানি না টেলিমেডিসিন টা ফির কি?

গতকাল (১৮/০৮/২০২০) তিস্তা নদী রক্ষা কমিটির কয়েকজন  সদস্য দহগ্রাম-আঙ্গরপোতায় সাড়া টেলিমেডিসিন চিকিৎসা সেবার প্রচার করার জন্য যায়। পথিমধ্যে তারা বড়খাতা, বাউরা, ডালিয়া...

দেশের শেষ প্রান্তে পৌঁছে গেলো “সাড়া”

গতকাল (১৮/০৮/২০২০) তিস্তা নদী রক্ষা কমিটির কয়েকজন  সদস্য দহগ্রাম-আঙ্গরপোতায় সাড়া টেলিমেডিসিন চিকিৎসা সেবার প্রচার করার জন্য যায়। পথিমধ্যে তারা বড়খাতা, বাউরা, ডালিয়া...